avp-recca-800px
Thingumajig

আনিমের ভিন্ন রূপ

 
 

খুব ছোটবেলা থেকে দেখতাম যে আমার বড় ভাই কার্টুন দেখতে ভালোবাসত। তার সাথে বসে আমিও দেখতাম। বিটিভিতে তখন Teenage Mutant Ninja Turtles হত, খুব ভাল লাগত। এরপর যখন আমার বড় ভাই নবম শ্রেণিতে উঠল, তখন তার জন্য আমি প্রতিদিন বিকেলে AXN থেকে VCR এ Samurai X (Rurouni Kenshin: Meiji Kenkaku Romantan), Flame of Recca (Rekka no Honoo)– এগুলো রেকর্ড করে রাখতাম যাতে সে কোচিং থেকে ফিরে এসে দেখতে পারে। রেকর্ড করার সময় যাতে কোন ঝামেলা না হয় সে কারণে আমিও বসে দেখতাম। এভাবে আমার প্রথম দেখা আনিমে ছিল Samurai X। কিন্তু তখনো আমি জানতাম না যে এদের আনিমে বলে। আমার সত্যিকারের আনিমে-দুনিয়ায় যাত্রা শুরু হয় যখন আমি Cartoon Network এ Dragon Ball Z দেখি। এই আনিমে থেকে আমি অনেক কিছু বুঝতে পারি, এই আনিমে আমাকে শিখায় কিভাবে শুখু নিজের জন্য নয় বরং অন্যদের জন্যও নিজেকে আরো শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে হয়…কিভাবে বন্ধুত্বের সম্পর্ক আর পরিবারের সম্পর্ককে সম্মান দিতে হয়। আমার কাছে তখন থেকেই আনিমের ভিন্ন একটা রূপ ধরা পড়তে শুরু করে, অনেকের কাছেই হয়তো বা আনিমে শুধুই বিনোদনের একটা বিষয়, কিন্তু আমার কাছে ব্যাপারটা ছিল সম্পূর্ণ অন্যরকম। আনিমে যেন জীবনেরই একটা প্রতিচ্ছবি, যেখানে মানুষ তার কল্পনাকে বাস্তবের ভাষায় তুলে ধরে। Albert Einstein বলেছিলেন যে কল্পনা জ্ঞান থেকেও গুরুত্বপূর্ণ, কারণ জ্ঞান আমরা যা জানি ও বুঝি তার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে কিন্তু কল্পনা পুরো পৃথিবীকে নিয়ে করা যায়। আর আনিমে এই কল্পনাকেই খুব সুন্দর করে মানুষের সামনে তুলে ধরে। আনিমে থেকেই আমি শিখতে পারি যে যত বাধাবিপত্তি থাকুক, আমরা যদি এগিয়ে যাই তাহলে সাফল্য আসবেই (Naruto), প্রত্যেকের স্বপ্ন ভিন্ন হলেও লক্ষ্য যদি এক থাকে তাহলে একসাথে যে কোন কঠিন সমস্যারও সমাধান করা যায় (One Piece), অতীতের ভুলের জন্য প্রায়শ্চিত্ত করতে কিভাবে নিজেকে বদলে ফেলা যায় (Samurai X/Trigun), এবং আরো অনেক কিছু। আনিমে আমাকে শিখায় কিভাবে জীবনের কোথাও আটকে গেলে মাঝে মাঝে কল্পনার সাহায্যে আটকে থাকা সেই চার দেয়ালের মাঝ থেকে বের হওয়া যায়। আনিমেকে আমার আন্তরিক ধন্যবাদ যে আমাকে শুধু কল্পনার জগতের সাথেই পরিচয় করিয়ে দেয়নি, বাস্তব জগতেও অনেক ভাল আর সুন্দর মনের মানুষকে কাছ থেকে জানার সুযোগ করে দিয়েছে।

মোঃ মনিরুল ইসলাম মনি
২০১৪